সাংসদ আওয়ালের কাগজপত্র ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

0
55

লক্ষ্মীপুর-১ (রামগঞ্জ) আসনের বর্তমান সাংসদ এম এ আওয়ালের মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। তিনি জাকের পার্টির মনোনীত প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন। ঋণখেলাপি হওয়ায় গতকাল রোববার দুপুরে যাচাই-বাছাইয়ে তাঁর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৪–দলীয় জোটের শরিক হিসেবে তরীকত ফেডারেশন থেকে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করে সাংসদ হয়েছিলেন এম এ আওয়াল। এবার তরীকত ফেডারেশন থেকে মহাজোটের প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা না থাকায় দল বদল করে জাকের পার্টির প্রার্থী হয়েছেন তিনি।

এম এ আওয়াল বলেন, ‘আমার ব্যাংকে ১২ কোটি টাকার ঋণ ছিল। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ অন্যায়ভাবে ঋণটি খেলাপি করেন। ঋণখেলাপির বিষয়ে আমি হাইকোর্টে দুই মাস আগে একটি রিট করি। হাইকোর্ট ঋণখেলাপির বিষয়ে স্থগিতাদেশ দেন। হাইকোর্টের কাগজপত্র নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে আসার পথে একজন প্রার্থীর সমর্থক ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা তা ছিনিয়ে নিয়ে যান। এ কারণে আমার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। আমি এ বিষয়ে আপিল করব।’

রামগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুল ইসলাম বলেন, সাংসদ মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।

খবর যুগান্তরের।

LEAVE A REPLY